Website

অনপেজ এসইও করার ক্ষেত্রে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়!

আসসালামু আলাইকুম কি অবস্থা সবার সবাই কেমন আছেন আশা করি আল্লাহর রহমতে সবাই ভাল আছেন আমিও আল্লাহর রহমতে ভালই আছি।

আপনারা জানেন বর্তমান যে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নির্ভর একটি বিশ্ব আপনি যদি প্রযুক্তিনির্ভর বিশ্বে তাল মিলিয়ে চলতে চান।তাহলে অবশ্যই আপনাকে প্রযুক্তিনির্ভর নানারকম জ্ঞান অর্জন করতে হবে বর্তমানে আমরা বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি গুলো অনুসরণ করে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির মাধ্যমে বিশ্বকে একটি হাতের মুঠোয় নিয়ে এসেছি এই বিশ্বে যদি আপনার প্রযুক্তিনির্ভর কোন জ্ঞান না থাকে তাহলে আপনি ভালভাবে এই প্রযুক্তিকে উপভোগ এবং তাল মিলিয়ে চলতে পারবেন না। এজন্য আপনাকে প্রতিনিয়ত নানা রকম প্রযুক্তিনির্ভর বিষয়ে আপনার আয়ত্তে আনতে হবে আপনারা জানেন বর্তমান ইন্টারনেট এমন একটি জগত যেখানে আপনারা যে কোন কিছু খুব অনায়াসে শিখতে জানতে এবং উপভোগ করতে পারবেন আমরা সবাই বর্তমানে নানা রকম বিষয় সম্পর্কে না জানলে ইন্টারনেটে গুগলের মাধ্যমে সার্চ দিয়ে জেনে থাকি তো আপনারা জানেন আমরা আমাদের এই ওয়েবসাইটটি ও একটি শিক্ষনীয় ওয়েবসাইট এজন্য আমরা প্রতিনিয়ত এখানে নানা রকম শেখার বিষয় নিয়ে। কনটেন্ট লিখে থাকি তো আজকেও আমরা এরকম একটি গুরুত্বপূর্ণ কন্টেন আপনাদের মাঝে নিয়ে এসেছি যা আপনাদেরকে অবশ্যই সাহায্য করবে এবং আপনার নতুন কিছু শিখতে পারবেন তো কথা না বাড়িয়ে চলুন আমরা আজকের মূল আলোচনায় চলে যাই।

আজকের আলোচনা

আজকে আমরা আবার আপনাদের মাঝে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে হাজির হলাম আজকে আমরা আলোচনা করব অন পেজ এসইও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আপনারা যদি এভাবে কাজ করেন তাহলে অন পেজ এসইও তে খুব ভালো পারফর্মেন্স করতে পারবেন আপনার সম্পর্কে একটু ধারনা আছে যারা ওয়েবসাইট নিয়ে কাজ করি একটি ওয়েবসাইট লিঙ্ক করতে ওয়ান পেজ এসইও খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে প্রথমত অনপেজ এসইও সেরকম গুরুত্ব ছিল না কিন্তু বর্তমানে গুগলের করতে হলে আপনাকে সব থেকে বেশি যে বিষয়টি খেয়াল করতে হবে সেটি অনপেজ এসইও আজকে আমরা অন পেজ এসইও নিয়ে আলোচনা করতে চাচ্ছি কি কি বিষয়ে আপনাকে ভালোভাবে মানতে হবে এবং এই বিষয়গুলো মানলে আপনারা আপনাদের ওয়েবসাইট থেকে ভালো জায়গা করতে পারবেন সে নিয়ে আজকে আমরা আলোচনা করব অন পেজ এসইও সম্পর্কে একজন ব্লগারের জানা উচিত। কারণ তার ওয়েবসাইট তৈরি করতে গেলে অবশ্যই অন পেজ এসইও দরকার রয়েছে তাহলে চলুন শুরু করা যাক।

কিওয়ার্ড রিসার্চ

অনপেজ এসইও ক্ষেত্রে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আমি যেদিকে মনে করি সেটি হল কিওয়ার্ড রিসার্চ আমরা সবাই কিসের সম্পর্কে আগে থেকেই ধারণা রাখা একটি কী ওয়ার্ড এর উপর রিসার্চ করে আমাদের কন্টেন লিখতে হয় এক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে গুরুত্ব দিতে হবে আপনি যদি কিওয়ার্ড রিসার্চ ভালোমতো গুরুত্ব না দেন তাহলে আপনাকে অন পেজ এসইও করার ক্ষেত্রে অবশ্যই সমস্যায় পড়তে হবে তো আমি বলব আপনাকে কি ওয়ার্ড রিসার্চ এর প্রতি গুরুত্ব সহকারে দেখতে হবে একটি ভালো কনটেন লিখতে হলে আপনাকে প্রথম যে বিষয়টি সিলেক্ট করতে হবে সেটি হলো কি ওয়ার্ড আপনি যদি ভাল মানের কীওয়ার্ড নির্বাচন করতে পারেন তাহলে আপনার আর্টিকেলটি খুব সহজেই সার্চ ইঞ্জিনের ভালো পারফর্মেন্স করবে এখন আপনাদের মনে হয় তো প্রশ্ন আসতে পারে আপনারা কিভাবে কিওয়ার্ড রিসার্চ করবেন এবার রিচার্জ করার জন্য অনেকগুলো টুল রয়েছে আপনারা চাইলে এই টুলগুলো ব্যবহার করতে পারেন।

একটি কিওয়ার্ড রিসার্চ করার সময় অনেকগুলো বিষয়টিকে লক্ষ্য রাখতে হয় যেমন এই টি ওয়ার্ড এর উপর কত জন লোক সার্চ করেছে কোন দেশ থেকে সার্চ করেছে এবং এই কী-ওয়ার্ড এর চাহিদা কেমন আপনারা চাইলে এই বিষয়গুলো নিজে থেকেই শেষ করতে পারবেন না অবশ্যই আপনাকে কোন না কোন টুলের সাহায্য নিতে হবে।

  • Ahres
  • Google keyword planner
  • Moz
  • KWFinder
  • Ubersuggest

কিওয়ার্ড এর ব্যাবহার

কিওয়ার্ড রিসার্চ এরপর আপনার একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় লক্ষ্য রাখতে হবে আপনার কিওয়ার্ডগুলো কোন কোন জায়গায় এবং কনটেন্টের কোথায় কোথায় বসাতে হবে এই বিষয়টি কি এমন আপনার হয়তো এমন মনে হতে পারে যে আপনার কোন কনটেন্ট এর সব জায়গাতে আপনার কিবোর্ড গুলো বসাবেন এমনটি কিন্তু মোটেও করা যাবে না কারণ আপনাকে কি ওয়ার্ডগুলো কিছু গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় বসাতে হবে তবে আপনার একটি কনটেন্টের প্যারায় ধরুন আপনি প্রত্যেক 100 ওয়ার্ড এর মাঝে আপনার কনটেন্ট গুলো ব্যবহার করলেন তাহলে কিন্তু কনটেন্ট ব্যবহারের একটি ভালো বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। আপনি H1 ট্যাগ এর মধ্যে আপনার কিওয়ার্ডগুলো রাখতে হবে এবং অনেকে হয়তো প্রশ্ন করতে পারেন আমি একটা কনটেন্ট এ কতগুলো কিবোর্ড ব্যবহার করতে পারবেন তবে এখানে কোনো নিয়ম নেই যে আপনাকে নির্দিষ্ট হারে কন্টেন এ কি ওয়ার্ড ব্যবহার করতে হবে। এখানে প্রায় প্রত্যেকের মতামত অল্পসংখ্যকই ওয়ার্ড ব্যবহার করা কারণ বেশি ওয়ার্ড ব্যবহার করলে আপনার মূল কী-ওয়ার্ডটি যখন কেউ সার্চ করবে তখন গুগলে ভালো রেঙ্ক করবেনা আপনাকে প্রধান প্রধান কিওয়ার্ডগুলো বাছাই করতে হবে তারপর আপনার সেই প্রধান কি ওয়ার্ড গুলো কনটেন্টে এবং Yoast এবং Rank math প্লাগিন এর মাধ্যমে ফোকাস কিওয়ার্ড এ সাবমিট করতে হবে তাহলে গুগল বুঝতে পারবে আপনার প্রধান কিওয়ার্ডগুলো কি কি এবং সেগুলো দ্বারা আপনার ওয়েবসাইটটি রেঙ্ক করতে সাহায্য করবেন এখানে আমি বলব আপনার প্রধানকে ওয়ার্ডগুলো কনটেন্টে এবং ফোকাস কিওয়ার্ড এ সাবমিট করা এবং অল্পসংখ্যক কিওয়ার্ড ব্যবহার করা এবং আপনার এখানে সবথেকে কী-ওয়ার্ড রিসার্চ এর ক্ষেত্রে গুরুত্ব দিতে হবে।

কোয়ালিটিফুল কনটেন্ট বা আর্টিকেল

কিওয়ার্ড রিসার্চ এরপর আপনাকে প্রধান যে বিষয়টির উপর লক্ষ্য রাখতে হবে সেটি হল কোয়ালিটিফুল কনটেন্ট বা আর্টিকেল। বর্তমানে গুগলের সাইট নিয়ে সারা বিশ্বজুড়ে একটি প্রতিযোগিতা চলছে প্রায় সবাই চায় যেন তাদের ওয়েবসাইট গুগলের ফাস্ট পেজে শো করে এবং ফার্স্ট পোস্ট করে সেখান থেকে ভালো ভিজিটর পাওয়া যাবে তো অন পেজ এসইও ক্ষেত্রে কনটেন্ট লেখার ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্ব সহকারে লেখা উচিত কারণ আপনার কনটেন্ট যদি কোয়ালিটিফুল হয় তাহলে অবশ্যই রেঙ্ক করবে গুগোল কোন জায়গায় নির্দিষ্টভাবে বলিনি যে গত সপ্তাহের কতটুকু কনটেন্ট লিখতে হবে কিন্তু এটি বলেছে অবশ্যই কন্টেন্ট টিকে তথ্যবহুল হতে হবে।

প্রথমে আপনি যে কিওয়ার্ড নিয়ে লিখবেন সেই কী-ওয়ার্ডটি দিয়ে গুগলে সার্চ করে নিবেন তারপর আপনি এখানে প্রথম পেজে যে ওয়েব সাইটটি দেখতে পারবে না সেই ওয়েবসাইটে দেখে নেবেন কন্টেন কোয়ালিটি কেমন এখানে যদি ভাল কোয়ালিটি পূর্ণ কনটেন্ট থাকে তাহলে আপনাকে চেষ্টা করতে হবে এর থেকেও ভালো তথ্যবহুল এবং কোয়ালিটি পূর্ণ কনটেন্ট আপনাকে আপনার ওয়েবসাইটে পাবলিশ করতে হবে তাহলে আপনি আপনার ওয়েবসাইটটি খুব সহজে গুগলের রেঙ্ক করতে পারবেন। তাহলে আপনারা বুঝতেই পারছেন কোয়ালিটি পূর্ণ কন্টেন কতটা গুরুত্বপূর্ণ একটি ওয়েবসাইটের জন্য এজন্য আপনাকে কোয়ালিটি পূর্ণ কনটেন্ট লেখার চেষ্টা করতে হবে যদি আপনি গুগলের রাঙ্ক করতে চান আপনার ওয়েবসাইটটি কে।

ওয়েবসাইট স্পিড

এখন একটি আরো গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে অন পেজ এসইও আলোচনা করব একটি ওয়েবসাইটের স্পিড অনেকাংশে গুগলে ওয়েবসাইট র‍্যাঙ্ক করার ক্ষেত্রে ভালো ভূমিকা পালন করে আপনাকে প্রতিনিয়ত আপনার ওয়েবসাইটে ফাস্ট রাখার চেষ্টা করতে হবে কারণ আপনার ওয়েবসাইট যদি স্লো হয় তাহলে কিন্তু অনেক ভিজিটর প্রথমবার আপনার ওয়েবসাইটে এসে পরবর্তীতে আর আপনার ওয়েবসাইটে আসতে চাইবে না এজন্য আপনাকে আপনার ওয়েবসাইটের এর স্পিড ভালোভাবে অপটিমাইজ করতে হবে।

আমাদের শেষ কথা

তো আজকে এ পর্যন্তই আশা করি আর্টিকেলটি আপনাদের পছন্দ হয়েছে আর্টিকেলটি যদি পছন্দ হয়ে থাকে তাহলে প্রতিনিয়ত এরকম নিত্যনতুন আর্টিকেল পেতে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন আর এই ওয়েবসাইটটি যদি আপনার পছন্দ হয়ে থাকে তাহলে আপনার বন্ধু বান্ধব দের মাঝে আমাদের এই ওয়েবসাইটটি শেয়ার করবেন এ পর্যন্তই ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন আমাদের এই ওয়েবসাইটটির সঙ্গেই থাকুন সামনে আরো নতুন কোন আর্টিকেল নিয়ে আবারো আমি আপনাদের মাঝে হাজির হব সে পর্যন্ত ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন আমাদের সঙ্গেই থাকুন আল্লাহ হাফেজ।

Ashik

আমি আশিক। আমি একজন ব্লগার। নিজে জানতে এবং অন্য কে জানাতে পছন্দ করি। আমি যা জানি তা এই ওয়েবসাইটে এর মাধ্যমে সবাইকে জানানোর চেষ্টা করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button